ফের সাংবাদিকদের কন্ঠরোধ করার চেষ্টা

পল মৈত্র,পি.এম.নিউজ 365;দক্ষিন দিনাজপুরঃ সত্য ঘটনা তুলে ধরতে বাঁধা দিয়ে সাংবাদিকদের জেলে ভরার হুমকি দিলেন দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বংশীহারী বিডিও সুদেষ্ণা পালের ।

মেজাজ হারিয়ে সাংবাদিকের সাথে দুর্ব্যবহার করেন তিনি। সত্য ঘটনা তুলে ধরার চেষ্টার কারনে শুধু সাংবাদিকের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করাই নয়, সত্য ঘটনা তুলে ধরতে ছবি তোলার কারনে সাংবাদিককে জেলে দেবার হুমকিও দেন বিডিও।

ঘটনায় অভিযুক্ত বিডিও সুদেষ্ণা পাল-এর ভূমিকায় নিন্দার ঝড় দক্ষিণ দিনাজপুর সহ উত্তরবঙ্গ জুড়ে। সোমবার এই ঘটনা দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বংশীহারী ব্লকের। জানা গেছে সোমবার উদ্যান পালন দপ্তর থেকে উপভোক্তাদের দেওয়ার গাছ নিয়ে আসে গাছের একটি বরাত পাওয়া একটি সংস্থা। দেখা যায় গাছগুলির বেশীরভাগ সংখ্যকই মরা এবং পচা। এমনকি সাধারণ মানুষদের অনেকের বোধগম্যের উপযোগী নয় এগুলি গাছ না আবর্জনার স্তুপ। যা দেখে সাধারণ মানুষ রাও প্রশ্ন তোলেন যে এই গাছগুলি কী রোপনের যোগ্য?এবং যে ঘটনার খবর পেয়ে সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে পৌছে সরকারিভাবে বরাত পাওয়া বিতরণের জন্য আনা মরা ও পচা গাছগুলির ছবি তুললে একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলের সাংবাদিকের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন বংশীহারী ব্লকের বিডিও সুদেষ্ণা পাল।

পুরো ঘটনা ক্যামেরা বন্দী হতে দেখে বংশীহারী ব্লকের বিডিও সুদেষ্ণা পাল গাছগুলি বরাত পাওয়া সংস্থাকে ফিরিয়ে দিলেও ঘটনার পর ঐ বেসরকারি চ্যানেলের সাংবাদিককে ছবি তোলার কারনে জেলে পোরার হুমকি দেন।

সত্য ঘটনা তুলে ধরার কারনে বিডিও সুদেষ্ণা পালকে সাংবাদিকদের সাথে দুর্ব্যবহার করা এবং হুমকি দেওয়ার ঘটনা চাউড় হতেই দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা সহ উত্তরবঙ্গ জুড়ে নিন্দার ঝড় উঠেছে। সেই সঙ্গে সাধারণ মানুষরা প্রশ্ন তুলতে আরম্ভ করেছে যে তাহলে কি বিডিও কিছু আড়াল করতে চেয়েছিল, যা আড়াল না হওয়ায় বিডিও-র অসংবিধানিকভাবে ক্ষমতা জাহির করা রোষের মুখে সাংবাদিকরা।

কি কারনে বিডিও-র এমন ব্যবহার তা জানতে ঘটনার পরে সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে বিডিও সুদেষ্ণা পাল-এর সঙ্গে একাধিকবার ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা হলেও উনি(বিডিও) ফোন ধরেননি। ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন দক্ষিণ দিনাজপুর জার্নালিস্টস্ ক্লাব।