কাবা শরীফের নামাজ পড়ার অনুমতি দিলো সৌদি সরকার দীর্ঘ সাত মাস

পিএম নিউজ 365,আন্তর্জাতিক ডেক্স:- করোনা সংক্রমণের কারণে এ বছর মুসলিমদের পবিত্র হজ বন্ধ ছিল। যদিও সৌদি আরব সরকার সেদেশের প্রায় দেড় হাজার জন মানুষকে করোনা বিধি মেনে হজ করার সুযোগ দিয়েছিল। কিন্তু করোনার প্রভাব থাকায় বিদেশিদের ক্ষেত্রে হজে যাওয়ার সুযোগ ছিল না।

 

শুধু তাই নয়, করোনা সংক্রমণ সৌদি আরবে ছড়িয়ে পড়ার পর সে দেশের সরকার মক্কা ও মদিনা সহ সব মসজিদ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। পরবর্তীতে করোনা সংক্রমণ কমতে থাকায় জামাত করে নামায পড়ার অনুমতি মিললেও মক্কার কাবা শরিফের মসজিদুল হারাম-এ জামাতে নামায পড়ার অনুমতি ছিল না।

 

কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর অবশেষে সৌদি আরবের নাগরিক ও সেদেশে বসবাসকারী বিদেশিদের মসজিদুল হারামে জামাত করে নামাজ পড়ার অনুমতি দিয়েছে সৌদি কর্তৃপক্ষ। সাত মাস পর এ অনুমতি মিলল বলে সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন রোববার সকালে জানিয়েছে। এই খবর আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা প্রচার করে রোববার পবিত্র মসজিদুল হারামে নামায পড়ার ছবি প্রকাশ করেছে।

 

মহামারীর কারণে মার্চ থেকে পবিত্র এ স্থানটিতে সীমিত আকারে নামাজ আদায় চললেও জামাত বন্ধ আছে। এতদিন সাধারণ মুসল্লিদের মসজিদে প্রবেশ করার অনুমতি ছিল না। শুধু ইমাম, মুয়াজ্জিনসহ মসজিদের কর্মচারীরা সেখানে নামাজ আদায় করতে পারতেন।

 

উল্লেখ্য, ১৭ মার্চ প্রথম এক ঘোষণায় সৌদি সরকার মক্কা ও মদিনার প্রধান দুই মসজিদ ছাড়া দেশটির বাকি সব মসজিদে জামাতে নামাজ স্থগিত করে নির্দেশ জারি করেছিল দেশটির কর্তৃপক্ষ। পরে এ দুটি মসজিদেও জামাতে নামাজ আদায় বন্ধ করা হয়।

 

৪ অক্টোবর প্রথম ওমরাহ যাত্রীদের জন্য মসজিদুল হারামের দুয়ার খুলে দেয়া হয়। সৌদি আরবে রোববার পর্যন্ত ৩ লাখ ৪১ হাজার ৮৫৪ জনের মধ্যে মহামারীর সংক্রমণ ধরা পড়েছে, মৃত্যু হয়েছে ৫ হাজার ১৬৫ জনের।