জেবুন্নেছার বিয়ে হলো,কিন্তু ফুলসজ্জা হলোনা,স্বামীকে কুপিয়ে খুন করলো বিজেপির কর্মীরা

 

 

 

 

 

 

 

 

নিজস্ব সংবাদদাতা : জেবুন্নেসার বিয়ে  হল কিন্তু  ফুলসজ্জা হলো না‌। পারিবারিক ঘেরোটোপের ফলে স্বামীর ছোঁয়া থেকে বঞ্চিত হল জেবুন্নেসা।

আজ থেকে প্রায় মাস পাঁচেক আগে নিহত তৃণমূল কর্মী কাইয়ুম মোল্লার সঙ্গে ক্যানিংয়ের শিমুলতলার ২৩ বছরের যুবতী কন্যা জেবুন্নেছার বিয়ে হয়।সরকারি  বিধি মেনে রেজিস্ট্রি করা হয়। সে এখন বিয়ে থার্ড ইয়ারে পড়াশোনা করছে ।পরীক্ষা শেষে শ্বশুরবাড়ি পড়াশোনা শেষ করে আসার কথা ছিল তার।

 

শ্বশুর বাড়ি আসলো ঠিকই কিন্তু স্বামীর ছোঁয়া পেলোনা সে‌। বরং স্বামীর মৃত্যুর খবর শুনে মরালাশ দেখতে হলো তাকে। স্বপ্নের ফুলশয্যা হলো না তার ‌। গত ৮-ই জুন বিজেপি কর্মী সমর্থকরা জেবুন্নেছার স্বামীকে কুপিয়ে খুন করে। তাই স্বামীর মৃত্যুর খবর শুনে স্তম্ভিত হয়ে গেল সে।

 

 

ন্যাজাটের ভাঙ্গিপাড়ায় যখন বিজেপি কর্মীদের মৃতদেহ নিয়ে মিছিলের তোড়জোড় করছিলেন বিজেপি নেতারা, সেই একই সময় রাজবাড়ি এলাকায় জেবুন্নেছার স্বামী কায়ুমের বাড়িতে নিস্তব্ধতা। স্বামীর ঘর করতে না পারা যুবতী মেয়েটি তখন যেন কান্নার শক্তিও হারিয়ে ফেলেছে। আকাশের দিকে তাকিয়ে কথা বলার ভাষা খুঁজছিলেন। কিন্তু একটি শব্দও মুখ দিয়ে যেন বেরোচ্ছিল না তাঁর।

 

ভেড়িতে কাজ করা কায়ুম এলাকায় সৎ যুবক হিসেবেই পরিচিত। তবে সব কিছু হারিয়েছে রাজনৈতিক ঘেরাটোপে। নেতারা যখন মঞ্চের প্রথম সারিতে গিয়ে চেয়ার দখলের লড়াই করে, তখন নিচুস্তরের কর্মী-সমর্থকদের খুন জখম হয়ে বিধবা হতে হয় তার স্ত্রীদের, অনাথ হয় তার সন্তানদের, সন্তান হারা হতে হয় তার মায়ের। তা ঘটল জেবুন্নেছার জীবনে।