‘জয় শ্রীরাম’ বলতে অস্বীকার করায় হরিয়ানায় মুসলিম যুবককে বেধড়ক মারধর করে উগ্র হিন্দুত্ববাদী দল

পি এম নিউজ ডেস্ক: লোকসভা ভোটের খবর একদিকে মোদি সংখ্যালঘুদের মন-বিশ্বাস জয়ের জন্যে তাঁর সাংসদদের উপদেশ দিচ্ছেন। মোদির উপদেশ যে শুধুমাত্র মুখেই সেটা আবার প্রমাণ করল বিজেপি শাসিত হরিয়ানার গুরুগ্রাম। শনিবার এক মুসলিম যুবকের মাথায় টুপি থাকায় থাপ্পড় মারে, ভারত মাতাকি জয় বলতে বাধ্য করে এবং পরে ‘জয় শ্রীরাম’ না বলায় লাঠি দিয়ে পেটাতে থাকে হিন্দুত্ববাদী দল।

মোঃ বারকর আলম বয়স ২৫
নামক যুবক পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছে যে, রমজানের রোজা অবস্থায় মাথায় টুপি লাগিয়ে যখন নামাজ পড়তে যায়, তখন চার যুবক পথ আটকে গালে থাপ্পড় মেরে মাথার টুপি খুলতে বলে।

মোঃবারকত আলম বলেন, “অভিযুক্তরা আমাকে হুমকি দিয়ে বলেছে, এই এলাকায় মাথায় ইসলামি টুপি পড়ার অনুমতি নেই। অভিযুক্তরা থাপ্পড় মেরে টুপি খুলে দিয়েছে।”
এখানেই হিন্দুত্ববাদীরা খ্যান্ত হয়নি। তাকে ভারত মাতাকি জয় বলতে বলে। আলম বল আমি স্লোগানও দেয়। এরপরে অভিযুক্তরা হিন্দুত্বের স্লোগান ‘জয় শ্রীরাম’ বলতে বলে। আমি অস্বীকার করায় অভিযুক্তরা নির্দয়ভাবে লাঠি দিয়ে পেটাতে থাকে। পরে মসজিদ থেকে মুসলিমরা চলে এলে অভিযুক্তরা পালিয়ে যায়।”