ঝাড়খণ্ডে তাবরেজ আনসারিকে পিটিয়ে হত্যার তীব্র নিন্দা করলেন, পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকী

নিজস্ব সংবাদদাতা দেখা পিএম নিউজ:
ঝাড়খণ্ডে ২৪ বছরের যুবক তাবরেজ আনসারিকে ১৮ ঘন্টা ধরে পিটিয়ে মেরে ফেলা হয়।পরে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে।কিন্তু পুলিশ হাসপাতালে না নিয়ে গিয়ে থানায় নিয়ে আসে।পরে হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত্যু হয় তাবরেজের।

তাবরেজ আনসারিকে হত্যা ও দেশ জুড়ে উগ্র সাম্প্রদায়িকতার প্রতিবাদে সারা দেশ জুড়ে প্রতিবাদের ও নিন্দার ঝড় উঠেছে।

ফুরফুরা শরিফ আহলে সুন্নাতুল জামাতের কর্ণধার পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকি জানান,”গণপিটুনির ঘটনা সন্ত্রাসের থেকেও ভয়ংকর। দোষিদের কঠোর শাস্তির দাবিতে তিনি কেন্দ্রীয় ও ঝাড়খণ্ড সরকারের কাছে আবেদন জানান”।

পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকী বলেন, সম্প্রীতির বাংলা তথা ভারতবর্ষে কখনই সাম্প্রদায়িকতা কে সর্মথন করতে পারেনা।এছাড়াও বাংলায় বেড়ে চলা উগ্র সাম্প্রদায়িকতার দিকে কড়া নজর রাখার জন্য রাজ্য সরকারের কাছে আহ্বান করেন এবং ক্যানিং এ মাদ্রাসা শিক্ষককে মারধরে জড়িত অপরাধীদের কঠিন শাস্তির দাবি জানান।উক্ত দুই ঘটনায় কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারের বিন্দুমাত্র দূর্বলতা যেনো না দেখায়।

জুম্মার নামাজ বাদ ফুরফুরা দরবার শরিফে ঝাড়খণ্ডের তাবরেজ আনসারির রুহের মাগফিরাতের জন্য দুয়া করেন এবং ঝাড়খণ্ড ও ক্যানিং কান্ডের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ায় দেশ তথা বাংলা জুড়ে উত্তেজনায় সমস্ত সম্প্রদায়ের মানুষকে শান্তি ও সম্প্রীতি অক্ষুণ্ণ রাখার আহ্বান করেন।