দিল্লিতে আপ-এর সঙ্গে জোট না হওয়ায় লোকসভা ভোটে না লড়ার সিদ্ধান্ত অজয় মাকেনের

নিজস্ব সংবাদদাতা,পি.এম নিউজঃ কংগ্রেস ও আপ দু’দলের জোট নিয়ে জটিলতা চলছে গত কয়েক দিন ধরেই। সেই সঙ্গে চলছে দোষারোপ, পাল্টা দোষারোপের পালা। আপ নেতারা জোট না হওয়ার জন্য দায়ী করছেন কংগ্রেসকেই।
দিল্লিতে আম আদমি পার্টি (আপ)-র সঙ্গে জোট না হলে তিনি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন না। কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন কংগ্রেস নেতা অজয় মাকেন।

নিজের অবস্থান আগেও শীর্ষ নেতৃত্বকে জানিয়েছিলেন অজয় মাকেন। ভোটের টিকিট না পেলেও দিল্লিতে আপ-কেই তিনি সমর্থন করবেন বলে জানিয়েছেন অজয়। ভোটের আগে কংগ্রেস নেতার এই ‘গোঁ ধরা’ ছবিটা রাজ্য কংগ্রেসের অন্দরে ‘সঙ্ঘাত’কে আরও সামনে এনে দিল বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। সূত্রের খবর, দিল্লিতে আপ-কংগ্রেস সমঝোতা না হওয়ার বিষয়েও কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কাছে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন অজয় মাকেন।
আক্ষেপের সুর শোনা গিয়েছে খোদ আপ সুপ্রিমো অরবিন্দ কেজরীবালের গলায়। জোট না হওয়ার জন্য কংগ্রেস সভাপতির কোর্টেই বল ঠেলে দিয়েছেন তিনি।

আপের সঙ্গে জোট করার বিরোধী শিবিরের অন্যতম প্রধান ছিলেন দিল্লির কংগ্রেস সভাপতি শীলা দীক্ষিত। সম্প্রতি তিনি বলেছিলেন, কেজরীবাল রাহুলকে জোটের প্রস্তাবই দেননি। এই প্রশ্নের জবাবে গত সোমবার দিল্লির প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে কার্যত উপেক্ষাই করেন কেজরীবাল। বলেন, ‘‘রাহুল গাঁধীর সঙ্গে দেখা করেছি। শীলা দীক্ষিত সেই স্তরের গুরুত্বপূর্ণ নেত্রী নন।’’ আর কিছুদিনের মধ্যেই বিষয়টি পরিষ্কার হয়ে যাবে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।