নীরবেই রাজ্যসভা থেকে বিদায় নিলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং

পিএম নিউজ ডেস্কঃ রাজ্যসভার সদস্যপদ থেকে থেকে বিদায় নিলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং৷ গতকাল শুক্রবারই ছিল তাঁর রাজ্যসভা সাংসদ মেয়াদের শেষ দিন। টানা ২৮ বছর ধরে রাজ্য সভার সদস্য থাকার পর নীরবেই উচ্চকক্ষ রাজ্যসভা থেকে বিদায় নিলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং৷

প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রীই ছিলেন না। আঠাশ বছরের সাংসদ থাকার পাশাপাশি তিনি দশ বছরের প্রধানমন্ত্রী এবং তিনিই অর্থমন্ত্রী হয়ে দেশকে একদা বাঁচিয়েছিলেন। অথচ সেই প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহনের সিংহের এই বিদায় একেবারেই নীরবে৷ না কোনও বিদায়ী বক্তৃতা, না কোনও অভিনন্দনের উত্তাপ, না কোনও বিশেষ সংবর্ধনা৷ তাঁর কাজের বিচার যিনি ভাবীকালের ওপর ছেড়ে দিয়েছেন, সেই মনমোহনের এই বিদায়টাও তাঁর নিজের মতো খুবই চুপচাপ, বিনা হইচইতে হল৷

প্রাক্তন প্রধান মন্ত্রী তথা কংগ্রেস নেতা মনমোহন সিং রাজ্যসভার সদস্য হন ১৯৯১ সালে৷ তারপর সাত বার তিনি রাজ্যসভার সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন৷ প্রধানমন্ত্রী থাকার সময়ও তিনি রাজ্যসভাতেই ছিলেন৷ একবার নয়াদিল্লি কেন্দ্র থেকে লোকসভায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে হেরে গিয়েছিলেন৷ তারপর আর কোনওদিন লোকসভায় লড়েননি তিনি৷ এখন অসম থেকে রাজ্যসভায় নির্বাচিত ছিলেন৷ তাকে ফের রাজ্য সভায় ফিরিয়ে আনতে কংগ্রেসের সমস্যা হল, এখনই রাজ্যসভায় কোনও পদ খালি নেই৷

গুজরাটে কিছুদিন পরে দুটি আসনের নির্বাচন হবে৷ কারণ, অমিত শাহ এবং স্মৃতি ইরানি লোকসভায় নির্বাচিত হয়েছেন এবং রাজ্যসভার পদ ছেড়ে দিয়েছেন৷ সেই দুই পদে নির্বাচন হলে একটি বিজেপি পাবে ও একটি কংগ্রেস৷ তখন তাকে ফের নতুন করে রাজ্য সভায় নিয়ে আসা হবে কিনা সেটাই এখন দেখার।