সংসদের প্রথম দিনের অধিবেশনে হাজিরা নেই নুসরাত-মিমি

পিএম নিউজ ডেস্ক: বিয়ের জন্য দেশের বাইরে রয়েছেন নুসরত৷ আপাতত হবু বরের সঙ্গে তিনি পৌঁছে গিয়েছেন তুরস্কের বদরুমে৷ সেখানেই বসছে বিয়ের আসর৷ তবে সঙ্গে রয়েছে আরও নানা আনন্দ-অনুষ্ঠান৷ তবে বিয়ের জন্য প্রথমদিন সংসদে হাজিরা দিতে পারেননি নুসরত৷ শপথও নেওয়া হয়নি তার৷

এই তালিকায় রয়েছেন মিমিও৷ বন্ধুর বিয়ের জন্য তিনিও উড়ে গিয়েছেন তুরস্কে৷ তাই তিনিও হাজিরা দিতে পারেননি প্রথমদিন সংসদে৷ইতিমধ্যেই মিমি পৌঁছে গিয়েছেন তুরস্কে, যেখানে বসছে নুসরতের বিয়ের আসর৷

এই নিয়ে আবার শুরু হয়েছে বিতর্ক৷ কেন প্রথমদিনই সংসদে অনুপস্থিত এই দুই তারকা সাংসদ? প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে৷

তারকা সাংসদের সংসদে উপস্থিতির হার থাকে কম৷ এনিয়ে নানা সময় নানা কথা হয়েছে৷ গতবার গোটা অধিবেশনে মাত্র ১১ শতাংশ উপস্থিতি ছিল দেবের৷ এইবার এই হার বাড়াবেন তিনি, নিজেই জানিয়েছেন৷ সেখানে দাঁড়িয়ে প্রথমদিনই সেই নজির গড়লেন নুসরত-মিমি৷ এতেই বিতর্ক৷

শুধু উপস্থিতি নয় শপথও নেননি এরা৷ নিয়মানুযায়ী, প্রথম দিনের অধিবেশনই সব সাংসদ শপথ নেন৷ ১৭ই জুনের সেই প্রথমদিনের অধিবেশনে থাকতে পারেননি নুসরত ও মিমি৷ তাই শপথও নিতে পারেননি এই দুই সাংসদ৷ জানা গিয়েছে যে নুসরত বিয়ের জন্য ব্যস্ততার কথা জানিয়েছেন৷ তবে মিমি জানিয়েছেন যে ছবির কাজের চাপে তিনি থাকতে পারছেন না৷

দলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে ২৬ তারিখ দু’জনেই সংসদের হাজির হবেন৷ সেদিনই শপথ নেবেন নুসরত-মিমি৷ সদ্য বিয়ে করেই সংসদে যোগ দেবেন মিসেস নুসরত জৈন৷

এর আগে ওয়েস্টার্ন পোশাকে সংসদের সামনে ছবি পোস্ট করে বির্তক তৈরি করেছিলেন এই দুই তারকা জনপ্রতিনিধি৷ এবার প্রথমদিন সংসদে না থাকা বা সময় মতো শপথ না নিয়ে আবারও বিতর্কে জড়ালেন নুসরত ও মিমি৷