হুগলির চন্ডীতলা থানার সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা জানালেন পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকী

https://youtu.be/ACCTWqiGLWU

শামীম গাজী, পিএম নিউজ, হুগলি:: চন্ডীতলা থানার অর্ন্তগত বড়তাজ পুর ও কাপাস হাড়িয়া মাঝের পাড়া এলাকায় রামনবমীর মিছিলকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ হয়, গ্রামবাসীদের নিকট থেকে জানা যায় যে গতকাল বিনা অনুমতিতে রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক বাহিনীর জোর পূর্বক মুসলিম পাড়ায় ঢুকে নামাজ চলাকালীন উচ্চস্বরে গান-বাজনা করতে থাকে এমন সময় প্রতিবাদ করলে মসজিদে ভাঙচুর করা হয় এবং মুসলিম পাড়ায় ঢুকে প্রশাসনের সামনে মুসলিমদের ঘর-বাড়ি ভাঙচুর করা হয় এবং কিছু মুসলিম যুবক ও বৃদ্ধ মানুষকে বেধড়ক পেটাতে থাকে,এরপর মুসলিম জনসাধারণ প্রতিবাদে পথ অবরোধ করলে তাঁদেরকে পুলিশ ইট,পাথর ও লাঠি দিয়ে পেটাতে থাকে।

এলাকার শান্তি প্রিয় মুসলিমরা আতঙ্কিত হয়ে পড়ে, আজ দুপুর ১২ টার সময় ফুরফুরা শরিফ আহলে সুন্নাতুল জামাতের কর্ণধার পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকী সহ একটি প্রতিনিধি দল এলাকার শান্তি ও সম্প্রীতি রক্ষার স্বার্থে সাধারণ মানুষের সঙ্গে উক্ত এলাকায় সাক্ষাৎ করেন এবং অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের দাবি নিয়ে চন্ডীতলার CI ও চন্ডীতলা থানার OC সাহেবের সঙ্গে কথা বলেন এবং প্রশাসনকে নিরপেক্ষ কাজ করার কথা বলেন এবং নিরপেক্ষ ভাবে তদন্ত করে দোষিদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি রাখেন।
তিনি বলেন এই হুগলি জেলার ফুরফুরা দরবার শরিফ শান্তি,সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্যের এবং ভ্রাতৃত্বের বন্ধন কে মজবুত করার কথা বলেন, তাই আমরা ফুরফুরা দরবার শরিফের একজন প্রতিনিধি হিসাবে শান্তি ও সম্প্রীতির বাতাবরণ পুনরায় প্রতিষ্ঠা করার জন্য আমাদের এই সর্দাথক প্রয়াস। তিনি প্রশাসনের নিকট দাবি রাখেন যে, আপনারা যদি প্রকৃত অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার না করলে আগামী দিনে বৃহত্তর আন্দোলনে নামতে বাধ্য হবে হবে ফুরফুরা শরিফ আহলে সুন্নাতুল জামাত এবং সমস্ত রাজনৈতিক দলকে সম্প্রীতি রক্ষার জন্য আবেদন করেন।