মিম নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য সিদ্দিকুল্লাহর পাল্টা মিম নেতা সফিউল্লাহ

নিজস্ব সংবাদদাতা: লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ভরাডুবির পর, বিজেপি ১৮ টি সিট পেয়ে রাজ্যে জয় শ্রীরামের রাজনীতি করা শুরু করে দিয়েছে। বিভিন্ন প্রান্তে জয় শ্রীরাম স্লোগান দিয়ে মুসলিম যুবকদের উপর অত্যাচার করছে‌। এমনকি মাদ্রাসার ছাত্র থেকে মাদ্রাসা শিক্ষককে অত্যাচার করছে হিন্দুত্ববাদী আরএসএসরা।

তৃণমূল সরকারের ব্যর্থতা ও প্রশাসনের নিরাবতা রাজ্যকে কঠিন পরিস্থিতির দিকে ঠেলে দিয়েছে।বাংলায় এই কঠিন পরিস্থিতিতে মুসলিমরা অল ইন্ডিয়া মসলিশে ইত্তেহাতুল মুসলিমিন তথা আসাদুদ্দিন ওয়াইসির মিম গ্রহণ করতে চলেছে। সম্প্রতি মিম নিয়ে গোটা রাজ্য জুড়ে যুব সমাজের মনে এক উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে ‌।

আর এই বিষয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তৃণমূলের মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী এক বিতর্কিত মন্তব্য করে বসেন। তিনি বলেন, “মিম নিয়ে বেশি চেঁচামেচি করলে বিজেপির পালে হাওয়া উঠবে।”
তিনি আরও বলেন,”একটা পঞ্চায়েত জেতার ক্ষমতা আছে ? ভোট কাটাকাটি করলে কার লাভ হবে ? রীতিমত তিনি এভাবেই মিম কে হেয় প্রতিপন্ন করে প্রশ্ন ছুড়ে দিলেন।

তবে তার এই প্রশ্নের জবাবে মিম নেতা শফিউল্লাহ খান বলেন, সিদ্দিকুল্লাহ বাবুকে বাংলার মানুষ একসময় ভালোবাসতো, বিশ্বাস করেছিল কিন্তু মানুষের বিশ্বাস নষ্ট করে তিনি বেঁচা কেনার রাজনীতি করেছেন।যা মানুষ মেনে নিতে পারেনি।
তিনি আরও বলেন, তিনি এখন যে দলে আছেন সে দলে একজন-ই লিডার,আর সবাই ওয়ার্কার, ওনার মুখে এমন কথা মানায় না। আমাদের মিম মহারাষ্ট্রে দুই এম.এল.এ সিট নিয়ে একটি সংসদ জয়ী হয়েছে। আমরা বাংলায় আগামী বিধানসভায় ৭০ টি সিট দখল করবো ইনশাআল্লাহ।