চার মাসের সন্তান শহীদ, তবুও আন্দোলনে অনড় মা

পিএম নিউজ ৩৬৫: এতোদিন ধরে সে মায়ের সঙ্গে প্রতি রাতে শাহিনবাগের রাস্তায় বসে বিক্ষোভ দেখিয়েছিল। বিক্ষোভকারীরা পালা করে তাকে কোলে নিয়ে আদর করতেন। গালে এঁকে দিতেন জাতীয় পতাকা। কিন্তু দিল্লির কনকনে শীত গত ৩০ জানুযারি কেড়ে নিয়েছে চার মাসের ছোট্ট মহম্মদ জাহানের প্রাণ। ছেলের মৃত্যুর শোক বুকে চেপেই ফের প্রতিবাদসভায় ফিরে গিয়েছেন শাহিনবাগের প্রতিবাদী নাজিয়া।

দিল্লির বাটলা হাউস এলাকার বস্তিতে ত্রিপল–প্লাস্টিক দিয়ে তৈরি ছোট্ট ঝুপড়িতে স্বামী আরিফ, পাঁচ বছরের মেয়ে, একবছরের ছেলে আর চার মাসের জাহানকে নিয়ে সংসার নাজিয়ার। টোটো চালিয়ে এবং এমব্রয়ডারির কাজ করে সামান্য রোজগার করেন আরিফ। সংসার সামলে অবসর সময়ে স্বামীকে এমব্রয়ডারির কাজে সাহায্য করেন নাজিয়াও। কিন্তু গত ১৮ ডিসেম্বর থেকে বিক্ষোভে অংশ নেওয়ায় সেভাবে তা করতে পারেননি তিনি। ফলে গত মাসে আয়ও কম হয়েছে বলে জানালেন আরিফ।

নাজিয়া জানালেন, ঘুমের মধ্যেই মারা গিয়েছিল জাহান। গত ৩০ জানুয়ারি ভোররাত একটা নাগাদ জাহানকে নিয়ে ঝুপড়িতে ফিরে ঘুমিয়ে পড়েন তাঁরা। ভোরে উঠে দেখেন জাহান মৃত। ছোট ছেলেতে হারিয়েও দৃঢ় প্রতিজ্ঞ নাজিয়ার সাফ জবাব, তাঁর বাকি দুই সন্তানের ভবিষ্যত নিশ্চিত করতেই সিএএ–এনআরসি–র বিরুদ্ধে আন্দোলন জারি রাখবেন তিনি। তার জন্য আরোও দুটি সন্তানের প্রাণ দিতেও প্রস্তুত। আরিফের ক্ষোভ, সিএএ–র জন্যই তাঁর ছেলের মৃত্যু হয়েছে।