বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১২১তম জন্মজয়ন্তীতে পিএম নিউজের শ্রদ্ধাঞ্জলি

 

“যতদিন এ ভবে রবে মানবজাতি”

“ততদিন মুছবেনা তোমারই স্মৃতি”

 

বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১২১ তম জন্মদিন আজ। বিংশ শতাব্দীর বাঙালির মননে কাজী নজরুল ইসলামের মর্যাদা ও গুরুত্ব অপরিসীম। বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম ১৮৯৯ সালের ২৪ শে মে চুরুলিয়ায় এক দরিদ্র মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর প্রাথমিক শিক্ষা ছিল ধর্মীয়। স্থানীয় এক মসজিদে মুয়াজ্জিন হিসেবে কাজও করেছিলেন তিনি। পরবর্তীতে তিনি বিংশ শতাব্দীর অন্যতম জনপ্রিয় বাঙালি কবি , সঙ্গীতজ্ঞ ও দার্শনিক হিসাবে পরিচিতি লাভ করেন।

এছাড়াও তিনি বাংলা ভাষার অন্যতম সাহিত্যিক, দেশপ্রেমী এবং বাংলাদেশের জাতীয় কবি হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন।

 

তাঁর কবিতায় বিদ্রোহী দৃষ্টিভঙ্গির কারণে তাকে বিদ্রোহী কবি নামে আখ্যায়িত করা হয়। তাঁর কবিতার মূল বিষয়বস্তু ছিল মানুষের উপর মানুষের অত্যাচার এবং সামাজিক অনাচার ও শোষণের বিরুদ্ধে সোচ্চার প্রতিবাদ। এছাড়াও তিনি সমাজের নিপীড়িত ,নির্যাতিত, লাঞ্ছিত, অবহেলিত মানুষের ন্যায্য পাওনা বুঝে দিতে একাধিক আন্দোলন করে ছিলেন।১৯৬০ সালে তিনি ‘পদ্মভূষণ’ উপাধি লাভ করেন। এরপর মধ্য বয়সে তিনি ‘পিকস ডিজিজ’ নামক রোগে আক্রান্ত হন। এর ফলে তাঁকে সাহিত্যকর্ম থেকে বিচ্ছিন্ন থাকতে হয় এবং এই একই সাথে তিনি মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলে ছিলেন। এরপর তিনি বাংলাদেশ সরকারের আমন্ত্রণে ১৯৭২ সালে  স্বপরিবারে ঢাকা গমন করেন। এ সময় তাঁকে বাংলাদেশের জাতীয়তা প্রদান করা হয়। আমাদের এই সভ্য মানব সমাজের এক মহামানব ‘দুখু মিয়া’ অর্থাৎ কাজী নজরুল ইসলাম ১৯৭৬সালের ২৯ শে আগস্ট  পরলোক গমন করেন।