গঙ্গাসাগর মেলার প্রস্তুতি শুরু করলো দক্ষিণ ২৪ পরগনার জেলা প্রশাসন

গঙ্গাসাগর মেলার প্রস্তুতি শুরু করলো
দক্ষিণ ২৪ পরগনার জেলা প্রশাসন

পি এম নিউজ, ডেস্ক : গঙ্গাসাগর মেলার প্রস্তুতি শুরু হল। সাধারণত নভেম্বর- ডিসেম্বরে গঙ্গাসাগর মেলার প্রস্তুতি শুরু হয়। এবার অনেক আগেই গঙ্গাসাগর মেলার প্রস্তুতি শুরু করলেন দক্ষিণ ২৪ পরগনার জেলা শাসক পি উলগানাথন। ইতিমধ্যেই তিনি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলিকে নিয়ে আলিপুরে জেলার সদর দপ্তরে সভা করেছেন। ছিলেন অতিরিক্ত জেলা শাসক (সাধারণ) শ্যামল মন্ডলসহ জেলা প্রশাসনের অন্যান্য কর্তাব্যক্তিরা।
জেলা শাসকের কথায়, এবারে তিনি প্রথম গঙ্গাসাগর মেলা করবেন। ইতিমধ্যেই গঙ্গাসাগরে আধিকারিকদের নিয়ে পর্যবেক্ষণ করেছেন। মেলায় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ছাড়া মেলা হবে না। মেলায় যাত্রী পরিষেবার কথা মাথায় রেখে আরও সর্বাঙ্গীন সুন্দর মেলা পরিচালনা করতে তিনি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠকদের কাছ থেকে মতামত জানতে চান।
জেলা শাসক পি উলগানাথন সভায় বলেন, প্লাস্টিক, থার্মোকল বিহীন মেলা করতে উদ্যোগ নেওয়া হবে। যাত্রীদের যাতায়াত পর্যবেক্ষণে এবার নতুন প্রযুক্তি ব্যবহার করা হবে। কুম্ভ মেলা না থাকায় আসন্ন গঙ্গাসাগর মেলায় যাত্রী সমাগম অনেক বেশি হবে। তার জন্য সবরকম প্রস্তুতি নেওয়া হবে। কলকাতায় আউট্রাম ঘাট থেকে গঙ্গাসাগর মেলা প্রাঙ্গন যাত্রীদের ভীড় নিয়ন্ত্রণে লট ৮, কচুবেড়িয়া জেটি ঘাটের ১২ টা জেটিতে স্বেচ্ছাসেবক বাড়ানো হবে। মেলা প্রাঙ্গণে পানীয় জল সরবরাহ, স্যানিটেশন, পরিস্কার পরিচ্ছন্নতায় আরও জোর দেওয়া হবে। এছাড়াও এবারে মেলা প্রাঙ্গণে সমস্ত ইলেকট্রিক পোলে নাম্বারিং করা হবে। টয়লেট জোনগুলিতে হ্যালোজেন বেলুন ব্যবহার করা হবে। মেলা প্রাঙ্গণে যাত্রীদের গাইড করতে সাগর বন্ধু নামে অ্যাসিস্ট্যান্ট রাখা হবে। ইকো ফ্রেন্ডলি গঙ্গাসাগর মেলা করতে উদ্যোগ নেওয়া হবে।