“জয় শ্রীরাম” স্লোগান নিয়ে ভারত খন্ড বিখন্ড হবে বিতর্কিত মন্তব্য বাংলাদেশের চরমোনাই পীরের

নিজস্ব সংবাদদাতা: জয় শ্রী রাম ও গো-মাতা হত্যার নামে চলমান মুসলিম নির্যাতন বন্ধ না হলে ভারতবর্ষ খণ্ড-বিখণ্ড হবে বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ ফয়জুল করীম। আজ মঙ্গলবার ভারতে মুসলিম নির্যাতনের প্রতিবাদে ভারতীয় দূতাবাসে স্মারকলিপি পূর্ব বাইতুল মোকররম দক্ষিণ গেটে আয়োজিত গণমিছিল সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এ মন্তব্য করেন তিনি।

মুফতী সৈয়দ ফয়জুল করীম বলেন, ভারতীয় উপমহাদেশ ধর্মীয় সম্প্রীতির দেশ। এই দেশে বিভিন্ন ধর্মের লোকেরা শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করছে দীর্ঘদিন ধরে। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে ভারতে বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে মুসলমানদের ওপর চরম নির্যাতন চলছে। স্বাধীন ভারতে এই নির্যাতন আগেও ছিলো কিন্তু বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে তা সীমা ছাড়িয়ে গেছে। দিনে দুপুরে প্রকাশে মুসলামনদেরকে পিটিয়ে হত্যা করা হচ্ছে, কুপিয়ে হত্যা করা হচ্ছে। গো-হত্যার নামে চলছে বিভৎস নির্যাতন। মুসলিম মা বোনদের ওপর নেমে আসছে ভয়বহ নিপীড়ন। আমার তীব্র নিন্দা জানিয়ে ভারত সরকারকে হুশিয়ার করে দিতে চাই, মুসলমানদের ওপর চলমান নির্যাতন বন্ধ না হলে সারা বিশ্বের মুসলমানরা তীব্র আন্দোলন গড়ে তুলবে।

তিনি বলেন, ভারতবর্ষ কারো একার নয়। ভারত যেমন হিন্দুদের ঠিক তেমনি মুসলামানদেরও। সুতরাং মুসলামনদের ওপর নির্যাতন অব্যহত থাকলে ভারত খণ্ড-বিখণ্ড হয়ে যাবে। রোহিঙ্গাে ইস্যুতে বিশ্বব্যাপী সরব অবস্থানের কথা উল্লেখ্য করে ভারতে মুসলিম নির্যাতনের ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীকে সরব হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলনের আমীর মুফতী সৈয়দ রেজাউল করীম। এছাড়াও আরা উপস্থিত ছিলেন, প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী, রাজনৈতিক উপদেষ্টা অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, নগর উত্তর সভাপতি মাওলানা অধ্যক্ষ শেখ ফজলে বারী মাসউদ, ইসলামী ‍যুব আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি কে এম আতিকুর রহমান, ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি শেখ ফজলুল করীম মারুফ প্রমুখ।