আরাবুল ইসলামের আক্রমণের প্রতিবাদে ধিক্কার মিছিল

সাকিরুল ইসলাম,পি এম নিউজ,ভাঙ্গড়:
আজ ভাঙ্গড়ের পলিরহাট ২ অঞ্চলের নতুনহাট বাজার থেকে শ্যামনগর বাজার পর্যন্ত আরাবুল ইসলাম এর উপরে আক্রমণের প্রতিবাদে ও মিমির সমর্থনে এক মহামিছিল হয়।এই মহামিছিলে অংশগ্রহণ করেন এলাকার হাজার হাজার তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী সমর্থকরা।

পলিরহাট ২অঞ্চলের প্রাক্তন প্রধান হাকিমুল ইসলাম এর নেতৃত্বে আজ এই মহা মিছিলের আয়োজন করা হয়।এই মিছিলে পা মিলিয়েছেন ভাঙ্গড়ের সর্বস্তরের নেতারা।ভাঙ্গরে তাবড় নেতা প্রাক্তন বিধায়ক আরাবুল ইসলাম,ভাঙ্গড় ২ ব্লকের তৃণমূল কংগ্রেসের দলীয় সভাপতি অহিদুল ইসলাম,দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা পরিষদ সদস্য হাজী নান্নু হোসেন,তৃণমূলের যুব নেতা মমিনুল ইসলাম,ভোগালী ২এর বিতর্কিত প্রধান মোদাচ্ছের হোসেন, ভোগালী ১ এর প্রধান মোজাফফর হোসেন,শানপুকুর অঞ্চল এর তৃণমূল সভাপতি মহাসিন মোল্লা সহ অন্যান্য নেতৃত্ববৃন্দ।
এই মহামিছিলে যোগদান করেন। এই মিছিল থেকে সিপিআইএম তথা বামপন্থীদের বিরুদ্ধে ও জমি কমিটির অন্যতম নেতা অলীক চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে স্লোগান তোলেন তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী সমর্থকরা।
এই মিছিল নতুন হাট থেকে শুরু করে শ্যামনগর মোড়ে এসে শেষ হয়।
সেখানে উপস্থিত নেতারা বক্তব্য পেশ করেন রীতিমত আরাবুল ইসলাম প্রশাসনের এক নীতি পেশার আক্রমণ করেন তিনি বলেন,”তৃণমূল কংগ্রেসের কোন কর্মী যদি আক্রান্ত হয়,তাহলে প্রশাসনকে ছাড়বে না বলে রীতিমত তিনি হুমকি দেন”।
ভাঙ্গড় ২ ব্লকের দলীয় সভাপতি ওহিদুল ইসলাম বলেন,” আরাবুলের সঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেস আছে ,আমরা আছি ,ভাঙ্গরের মানুষ আছে, মিমি চক্রবর্তী ভাঙ্গড় থেকে জিতবেই”।
জেলা পরিষদ সদস্য নান্নু হোসেন বলেন যদি বহিরাগতরা এসে ভূমিপুত্রদের আক্রমণ করার চেষ্টা করে তাহলে তাদেরকেও পাল্টা জবাব দিতে বাধ্য থাকবে তৃণমূল কংগ্রেস”।
আরাবুল পুত্র পলিরহাট ২অঞ্চলের প্রাক্তন প্রধান হাকীমুল ইসলাম বলেন, যারা আরাবুল ইসলামের উপর আক্রমণ করেছে আমরা চাইলে তাদের ঘর থেকে বার করে এনে মারতে পারতাম!
কিন্তু আমরা মমতা ব্যানার্জির দল করি আমরা শান্তি চাই তাই আমরা তা করিনি।
যুবনেতা মমিনুল ইসলাম বলেন,”আরাবুল ইসলাম এর গায়ে হাত দেয় এমন মানুষের ভাঙ্গেড়ে জন্ম হয়নি এখনো।
জমি কমিটি বহিরাগত লোকদের ভাড়া করে ভাঙ্গরে আনছে।