আরাবুল-কাইজারের মধ্যে বিজেপি যোগ নিয়ে পরস্পর বিরোধী মন্তব্য

 

নিজস্ব প্রতিনিধি,পিএম নিউজ, ভাঙড়: যাদবপুরের বিজেপি প্রার্থী অনুপম হাজরার ইট পেতে রাখার দাবিকে উসকে দিল আরাবুল-কাইজারের বিজেপি যোগের পরস্পর বিরোধী মন্তব্য। উল্লেখ্য যাদবপুরের বিজেপি প্রার্থী অনুপম হাজরা নির্বাচনী প্রচারে ভাঙড়ের বামনঘাটাতে এসে দাবি করেছিলেন আরাবুল- কাইজারা বিজেপিতে যোগ দেওয়ার জন্য ইট পেতে বসে আছে। তিনি অবশ্য আরাবুল-কাইজারের নাম না নিয়েই এমন ইঙ্গিতবাহী মন্তব্য করেছিলেন। সেই মন্তব্য কিছুটা হলেও উসকে দিল ভাঙড়ের দুই নেতার বিজেপি যোগ নিয়ে একে অপরকে আক্রমণ।

শুক্রবার ভাঙড় ১এ ব্লকের তৃণমূল সভাপতি কাউজার আহমেদ আরাবুলের বিরুদ্ধে তীব্র আক্রমণ করেন। তিনি বলেন, আরাবুল হল একজন পচা নেতা। যার জন্য বারবার ভাঙড়ের বদনাম হয়।এছাড়া আরাবুল বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ করছে বলে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন কাইজার। যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী লক্ষাধিক ভোটে লিড পান ভাঙড় বিধানসভা থেকে। এই লিভ নিয়ে সংবাদমাধ্যমে আরাবুলের কৃতিত্ব দাবি করা কে কটাক্ষ করে কাইজার বলেন, ও কে? পার্টির কোন পদে আছে? ওর কোন কৃতিত্ব নেই। ও নির্বাচনের সময় সিপিএমের লোকেদের নিয়ে ঘুরেছে।

ভোটের ফল প্রকাশ হতেই তৃণমূলের এক প্রাক্তন জেলা পরিষদ সদস্য মীর তাহের আলীকে বিজেপির পতাকা নিয়ে উল্লাস করতে এবং রঙের খেলায় মাততে দেখা যায়। ফুলবাড়ী গ্রামে কাইজার অনুগামী এক সমর্থককে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে তাহের আলী ও তার অনুগামীদের বিরুদ্ধে। তাহের আরাবুল ঘনিষ্ঠ বলে অভিযোগ এনেছেন কাইজার। পাশাপাশি তিনি বলেন, অনুগামীদের আগে বিজেপিতে ঢুকিয়ে নিজে ঢোকার জন্য রাস্তা তৈরি করে রাখছে আরাবুল।

অপরদিকে আরাবুল ইসলাম পাল্টা কাউজার আহমেদকে চরিত্রহীন ছেলে বলে কটাক্ষ করেছেন। আরাবুলের পাল্টা দাবি ও কাইজার এবং তার ভাই বিজেপির সঙ্গে তলেতলে যোগাযোগ রাখছে। খুব তাড়াতাড়ি বিজেপিতে যোগ দিতে পারে।আরাবুল বলেন,কাইজাকে আমি রাজনীতিতে এনেছিলাম। ও আমার বিরুদ্ধে কি বলল তাতে আমার কিছু যায় আসে না। ও আর ওর বাবা আগে সিপিএম করত। আমার হাতে পায় পড়ে তৃণমূলে এসেছিল। আরাবুল উল্লেখ করেন, ভোজেরহাটের সাউথ সিটিতে কাইজার ৫০ লক্ষ টাকা তোলা চেয়েছিল। হাইকোর্টের নির্দেশে সে মামলা এখনও চলছে। একজন তোলাবাজের কাছে আরাবুলকে পচা নেতা শুনতে হবে এটা লজ্জাজনক। ভাঙড়ে তৃণমূল দলকে প্রতিষ্ঠা করেছেন বলে আরাবুল দাবী করেন। এদিনের সব ঘটনা জেলা নেতৃত্বকে জানিয়েছেন তিনি।