ভাঙড়ের রেশন দুর্নীতি সঠিক স্বীকার করলেন,ফুড ইন্সপেক্টর

সাকিরুল ইসলাম,পি এম নিউজ, ভাঙড়:গত শনিবার রেশন দুর্নীতি নিয়ে সরব হয়েছিল ভাঙ্গড় ২ ব্লকের পলেরহাট ২ অঞ্চলের উড়িয়া পাড়ার বাসিন্দারা। স্থানীয় মানুষদের অভিযোগ তাদের চাল-আটা কম দেওয়া হয়।
সরকার যতটুকু মাল দেয় তুলনামূলকভাবে রেশন দোকান থেকে অনেক কম পায় বলে অভিযোগ করেন তারা।

তারই প্রতিবাদে সরব হন গ্রামবাসীসহ জমি জীবিকা বাস্তুতন্ত্র রক্ষা কমিটি। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে রীতিমতো সেদিন ধুন্ধুমার কান্ড ঘটে। জমি কমিটি সেদিন রেশন দোকান বন্ধ করে দেয় এবং প্রশাসনের নিকট অভিযোগ করেন।

প্রশাসনের পক্ষ থেকে আজ ফুড ইন্সপেক্টর ও বিডিওর একজন প্রতিনিধি রেশন ডিলার সাহেব খানের রেশন দোকানে এক জরুরি বৈঠক করে। সেখানে উপস্থিত জনতার সম্মুখে রেশন দুর্নীতির স্বীকার করেন ফুড ইন্সপেক্টর বলেন আগামী তিন দিনের মধ্যে আমরা বিডিও এবং ডিএম অফিসে নথিপত্র পাঠিয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলবো এবং আমি নিজে এসে জানিয়ে দেবো।

জমি কমিটির সম্পাদক মির্জা হাসান রীতিমত হুমকি দিয়ে বলেন, যদি তিন দিনের মধ্যে এ সমস্যার সমাধান না হয় তাহলে আমরা বড়োসড়ো ব্যবস্থা নেব।

রেশন দুর্নীতি ভাঙড়ে এই প্রথম নয়, রেশন দুর্নীতি নিয়ে ভাঙড়ে এর আগে অনেকবার অভিযোগ উঠেছে।এবারের রেশন দুর্নীতি একটু আলাদা।
সুত্রের খবর, রেশন দুর্নীতির টাকা শাসক দলের নেতাদের পকেটেই ঢোকে।