আসানসোল পুরনিগম কতৃপক্ষ নির্দিষ্ট সময় সীমা বেঁধে দিলো, নবীকরণ ও নতুন ট্রেড লাইসেন্স দেওয়ার।

ট্রেড লাইসেন্স নবীকরণ ও নতুন দেওয়ার ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট সময় সীমা বেঁধে দিলো আসানসোল পুরনিগম কতৃপক্ষ। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ট্রেড লাইসেন্স দিতে না পারলে পুর আধিকারিককে আর্থিক জরিমানা দিতে হবে। বুধবার একথা জানান আসানসোল পুরনিগমের মেয়র জিতেন্দ্র তেওয়ারি। এই প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, নতুন ট্রেড লাইসেন্স দেওয়ার ক্ষেত্রে আবেদনকারী তা সর্বোচ্চ ৭ দিনের মধ্যে তা পেয়ে যাবেন। আর ট্রেড লাইসেন্স নবীকরণ বা রিন্যুয়ালের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ সময় সীমা হলো ৫ দিন। তবে যিনি ট্রেড লাইসেন্সের জন্য আবেদন করবেন তাকে নির্দিষ্ট ফর্ম বা আবেদন পত্রের সঙ্গে সব কিছু ঠিক ভাবে জমা দিতে হবে। তার পরেও যদি তিনি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ট্রেড লাইসেন্স হাতে না পান তবে, তিনি পুরকতৃপক্ষকে জানাবেন। পুর কতৃপক্ষ তা তদন্ত করে দেখবেন। যদি দেখা লাইসেন্স দেওয়ার ক্ষেত্রে কোন আধিকারিকের গাফিলতি আছে, তাহলে তার কাছ থেকে আর্থিক জরিমানা আদায় করা হবে। নির্দিষ্ট সময়ের পরে দিন প্রতি আধিকারিকের কাছ থেকে ১০০ টাকা করে জরিমানা আদায় করা হবে। এক্ষেত্রে কোন কিছু বরদাস্ত করা করা হবেনা। আমাদের উদ্দেশ্য হলো, পুর এলাকার ব্যবসায়ীদের কাছে সঠিক ভাবে পুর পরিসেবা পৌঁছে দেওয়া। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণা ও তার ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। তিনি আরো বলেন, ব্যবসায়ীরা অনলাইনের মাধ্যমে ঘরে বসে ট্রেড লাইসেন্সের জন্য আবেদন পত্র জমা করুন। সবকিছু অনলাইনের মধ্যে হবে। এক্ষেত্রে কাউকে সময় নষ্ট করে পুরনিগমে আসতে হবে না। তারা সবকিছু ঘরে বসেই পেয়ে যাবেন।