বনধে অশান্তির জন্য পুলিশ ও মমতাকে দায়ী করলো বিরোধীরা

নিউজ ডেস্ক : বনধকে কেন্দ্র করে মালদার সুজাপুরে গাড়ি ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ, টিয়ার গ্যাস ফাটানো এবং পুলিশের গুলি চালানো অশান্তির ঘটনায় মমতাকে বিঁধলেন কংগ্রেস ও বাম নেতৃত্ব। সাংবাদিক সম্মেলন করে সিপিএমএর পলিটব্যুরো সদস্য মহম্মদ সেলিম বলেন ‘উত্তরপ্রদেশে যোগীর পুলিশ যা করেছে, পশ্চিমবঙ্গে আজ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পুলিশ ঠিক সেই কাজই করল। যোগীর পুলিশ ওখানে যে ভাবে গাড়ি ভাঙচুর করেছে, দোকানপাট ভাঙচুর করেছে, আজ মালদহের সুজাপুরে মমতা ব্যানার্জির পুলিশ সে ভাবেই গাড়ি ভাঙচুর করেছে।’ বুধবার বিকালে ভারত বনধকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে মালদহের সুজাপুর এলাকা। বাম কংগ্রেসের তরফে অভিযোগ ওঠে, পুলিশ দাঁড়িয়ে থাকা গাড়ি ভেঙে বিক্ষোভকারীদের ঘাড়ে দায় চাপানোর চেষ্টা করছে।

অভিযোগের সুরে সেলিম জানান, ‘মমতা ব্যানার্জি বিজেপি-আরএসএসের হয়ে কাজ করছেন এবং পুলিশ ভাল পোস্টিং পাওয়ার আশায় এই ভাবে ধর্মঘটকে বদনাম করার চেষ্টা করেছে।’ অন্যদিকে এদিনের ধর্মঘট প্রসঙ্গে বহরমপুরের কংগ্রেস সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরি বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গে যদি আজ অশান্তি কিছু হয়ে থাকে, তা হলে তার পুরো দায় মমতার। নিজে যখন বিরোধী আসনে ছিলেন, তখন তো কম বনধ-অবরোধ মমতা ব্যানার্জি করেননি। এখন হঠাত্‍ সব ছেড়েছুড়ে সাধ্বী সাজার চেষ্টা করছেন কেন?’