পুলিশের গাড়ি ভাংচুর – আগুন লাগিয়ে দিলে তৃনমূল ভয়ে দমে যাবে – বিজেপির যুবনেতা শ্যামল রায়

নিউজ ডেস্ক : পুলিশকে মারধর, পুলিশের গাড়িতে ভাঙচুর এবং তাতে আগুন লাগানোর কথা বলে  বিতর্কে পূর্ব বর্ধমানের বিজেপির এক যুব নেতা শ্যামল রায়। বর্ধমান টাউন হলে নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে একটি সভায় বিভিন্ন জায়গায় দলের নেতাদের মার খাওয়ার প্রসঙ্গ টেনে শ্যামল রায় নামে ওই নেতা বলেন, ‘‘আমরা সংযত রয়েছি। কিন্তু যদি জেলা সভাপতি নির্দেশ দেন, তাহলে তৃণমূলকে পাল্টা আক্রমণ করতে পারি। তবে প্রথম মারব পুলিশকে।’’ দলের যুব কার্যকর্তাদের তাঁর পরামর্শ, “তৃণমূলকে দমানোর আগে, পুলিশের ভ্যান জ্বালান, পুলিশের গাড়ি ভাঙুন। দেখবেন, তৃণমূলও ভয় পেয়ে গিয়েছে। কারণ, তৃণমূল চলছে পুলিশের উপর দিয়ে।’’

ওই সময় মঞ্চে হাজির ছিলেন বিজেপির জেলা সাংগঠনিক সভাপতি (বর্ধমান সদর) সন্দীপ নন্দী, দলের যুব সংগঠনের রাজ্য সভাপতি দেবজিৎ সরকার। সন্দীপবাবু বলেন, ‘‘এ নিয়ে কথা বলব না।’’

শ্যামলবাবু ‘বিতর্কিত’ মন্তব্য করার পরেই সভায় পৌঁছন বিজেপির অন্যতম কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিংহ। তবে সভায় তিনি দাবি করেন, ‘‘অধিকাংশ পুলিশ বিজেপির পক্ষে রয়েছেন,  কিন্তু তাঁরা কিছু করতে পারছেন না। এটা যদি মিথ্যা হয় তা হলে রাজনীতি ছেড়ে দেব।’’ পরে শ্যামলবাবুর মন্তব্য সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘‘আমি ওই কথা শুনিনি। যদি এ রকম কেউ বলে থাকেন, তিনি অন্যায় করেছেন। তিনি আরো বলেন আমরা তৃণমূলের মতো কথা বলি না।