আঁধার কার্ড সংশোধনের দাবিতে পথ অবরোধ

নিজস্ব সংবাদদাতা: জেলাজুড়ে বন্ধ আধার কার্ড সংশোধন ও নতুন কার্ড তৈরির কাজ। ফলে মানুষের মধ্যে ক্ষোভ বাড়ছিল আগে থেকেই। তার উপর এন আর সি আতঙ্ক মানুষের মধ্যে গভীর রেখাপাত করেছে। সোমবার সকালে দেগঙ্গার বেড়াচাঁপায় বারাসত টাকি রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় হাজার হাজার মানুষ। তাদের দাবি অবিলম্ব প্রশাসন উদ্যোগ নিক মানুষের আধার কার্ড সংশোধনের।

স্থানীয় সুত্রের খবর বেড়াচাঁপায় একটি রাষ্ট্রত্ত্ব ব‍্যাংক শাখায় বন্ধ থাকা আধার সংশোধনের কাজ ২ রা ডিসেম্বর থেকে শুরু কথা আগেই জানানো হয়েছিল মানুষজনকে। সেই মতো রবিবার সন্ধ্যা থেকে আগাম ভিড় জমাতে থাকে ব‍্যাংক সংস্থার সামনে। স্থানীয় ঔষধ ব‍্যবসায়ী হাফিজুল রহমান জানান, সন্ধ্যা থেকে মানুষজন আসতে শুরু করলেও মধ্য রাতে ভিড় বাড়তে থাকে সোমবার সকালে তা রাস্তায় ভরে যায়। প্রায় হাজার চারেক মহিলা পুরুষের ভিড়ে প্রায় যানজটের আকার নেয় বারাসাত টাকি রোড়ে। ব‍্যাংকের নিচে মার্কেটের দোকান পাশারির ক্রেতা সাধারণের আসা বন্ধ হয়ে যায়। পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে, একদিনে সকলকে আসার কথা বলা হওয়ায় এই সমস্যা বলে দাবি করেন। তবে ব‍্যাংকের মধ্যে যখন একজন আধার কর্মী সেখানে কেন একদিনে সকলকে আসার কথা বলল তা নিয়ে সংশয় বাড়ছে পুলিশের মধ্যে। পাশাপাশি অভিযোগ খতিয়ে দেখে ব‍্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন তারা।

সোমবার সকালে বেড়াচাঁপার ওই ব‍্যাংক সংস্থায় আধার সংশোধনের জন‍্য ভিড় জমিয়ে ছিল চার হাজার মানুষ। ব্যাংক কতৃপক্ষ তাদেরকে জানায় মাত্র ২৫ জনের নাম লেখানো হবে। একথা শুনে ক্ষোভে ফেটে পড়ে হাজির হওয়া হাজার হাজার মানুষ। পরিস্থিতি ক্রমশ জটিল হতে থাকে। পুলিশ এলে আরও উতপ্ত হয়ে ওঠে। ক্ষোভে মানুষজন রাস্তা অবরোধ করে। তারজেরে আটকে পড়ে দমদম সেন্টার জেল থেকে বসিরহাট জেলা আদালতে বিচারাধীন আসামি ভর্তি গাড়ি। টানা দুঘন্টা পর পুলিশের আশ্বাসে অবরোধ উঠে। ব‍্যাংক কতৃপক্ষ পুলিশ ও বিডিও কে জানিয়ে দেন, প্রতিদিন ২৫ জনের কার্ড সংশোধনের নাম নথিবদ্ধ করা হবে । এই সংশোধনী চলবে ১৩ জানুয়ারি পর্যন্ত। তারপর পরিস্থিতি বুঝে ব‍্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে সাধারণ মানুষের দাবি একটা কাউন্টার খুলে হাজার হাজার মানুষের সমস্যা মেটানো সম্ভব নয় তার জন্য প্রতিটি ব্লকের প্রতিটি পঞ্চায়েতে আধার সংশোধনের ব‍্যবস্থা করতে হবে প্রশাসনকে।