মাদ্রাসায় সন্ত্রাসী যোগ নিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের অভিযোগের তীব্র নিন্দা জানালো আহলে সুন্নাতুল জামাত

মাদ্রাসায় সন্ত্রাসী যোগ নিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের অভিযোগের তীব্র নিন্দা জানালো আহলে সুন্নাতুল জামাত

নিজস্ব সংবাদদা,  ফুরফুরা শরীফ, পিএম নিউজঃ  ভারতের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জি কিষণ রেড্ডি সাংসদে নথি পেশ করে বলেছেন যে, পশ্চিমবঙ্গের মাদ্রাসা গুলিতে সন্ত্রাসী কার্যকলাপে ব্যবহৃত হচ্ছে। তার বিপক্ষে ফুরফুরা শরীফ আহলে সুন্নাতুল জামাতের কর্ণধার পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকী বিরোধীতা করে বলেছেন যে, মাদ্রাসা কী? মাদ্রাসায় কী শিক্ষা দেওয়া হয়? প্রকৃত মাদ্রাসার ছাত্র-ছাত্রীরা কেমন হয়? এবিষয়ে তিনি জানেন না ও কখনও জানার চেষ্টাও করেননি এবং তিনি কি কখনো মাদ্রাসায় পড়াশোনা করে দেখেছেন? পীরজাদা বলেন, সাড়ে ১৪০০ বছর ধরে হজরত মোহাম্মদ (সঃ) এঁর অনুসারীদের প্রকৃত ধর্মীয় শিক্ষার সাথে সাথে মানবপ্রেম ও দেশপ্রেম এর শিক্ষাও দেওয়া হয়। মাদ্রাসায় প্রতিবছর জাতীয় দিবস যেমন, প্রজাতন্ত্র দিবস, স্বাধীনতা দিবস ইত্যাদি এবং কি মাদ্রাসায় জাতীয় পতাকা তুলে ও জাতীয় গানের সাথে সেই দিবস পালন করা হয়। তিনি বলেন, স্বরাষ্ট্র দপ্তর ও এনআইএ তদন্ত করে ও ইতিহাস জেনে সমস্ত দেশবাসীর কাছে তুলে ধরুক যে ভারতবর্ষের স্বাধীনতা আন্দোলনে মাদ্রাসা ছাত্র ও উলামায়ে হজরতদের ভূমিকা এবং তদন্ত করে পশ্চিমঙ্গের কোনো মাদ্রাসার সাথে সন্ত্রাসযোগের প্রমাণ দিক। আমরাই সেই মাদ্রাসায় তালা ঝুলিয়ে দেব। পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকী বলেন, মাদ্রাসা বা ইসলাম ধর্মের সাথে সন্ত্রাসের কোনো যোগসুত্র নেই। সন্ত্রাসীদের কোনো ধর্ম হয়না, তাদের ধর্মই হলো সন্ত্রাসবাদ। তিনি বলেন, মাদ্রাসা ইস্যুতে ও ধর্মীয় বিভাজন ঘটিয়ে বাংলায় কোনোরকম সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি কে নষ্ট করতে দেব না। তিনি মাদ্রাসা পরিচালকবৃন্দ দের নিয়ম মেনে মাদ্রাসা পরিচালনা করতে বলেন এবং সমস্ত মানুষকে এই নোংরা রাজনীতির বিরুদ্ধে ফুরফুরা শরীফ আহলে সুন্নাতুল জামাতের আন্দোলনে পাশে থাকার আহ্বান জানান।