মুর্শিদাবাদে অল ইন্ডিয়া ইমামস কাউন্সিলের প্রকাশ্য জনসভা

মুর্শিদাবাদে অল ইন্ডিয়া ইমামস কাউন্সিলের প্রকাশ্য জনসভা

পি.এম.নিউজ ৩৬৫ ডেস্ক: হযরত মুহাম্মদ রাসূলুল্লাহ (সাঃ) আদর্শ প্রচারাভিযান উপলক্ষ্যে
“এক সৃষ্টি সমান মানবাধিকার শিরোনামে দেশব্যাপী প্রচারাভিযান চালাচ্চে অল ইন্ডিয়া ইমামস কাউন্সিল। গতকাল এই শিরোনামে মুর্শিদাবাদে একটি বিশাল সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

এনআরসি সঙ্কট ,কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার ,দেশজুড়ে পিটিয়ে হত্যা বন্ধ, বাবরি মসজিদ রায় পুনর্বিবেচনার দাবিতে অল ইন্ডিয়া ইমামস কাউন্সিলের রাজ্য কমিটির ডাকে মুর্শিদাবাদ জেলার সুতি ব্লকের শেরপুর ঈদগাহ ময়দানে এক বিশাল জনসভার আয়োজন করা হয়।

উক্ত জনসভায় উপস্থিত ছিলেন,অল ইন্ডিয়া ইমাম কাউন্সিলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক জনাব মৌলানা মুফতি হানিফ আহরার কাশেমী সাহেব, জাতীয় কমিটির সদস্য, মৌলানা মিনারুল সেখ, পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য কমিটির সভাপতি জনাব মৌলানা আব্দুত তোয়াব, পপুলার ফ্রন্ট অফ ইন্ডিয়ার পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য কমিটির সভাপতি মহাম্মদ আসাদুল্লাহ, রাজ্য সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান, রাজ্য কমিটির সদস্য ডক্টর মিনারুল সেখ, মুর্শিদাবাদ বামসেফ এর মুর্শিদাবাদ জেলা কমিটির সভাপতি মৃত্যুঞ্জয় সরকার, আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের মুর্শিদাবাদ শাখার প্রিন্সিপাল ডক্টর মাফিকুল ইসলাম ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।
উক্ত জনসভায় হাজার হাজার মানুষের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা যায় ।

অল ইন্ডিয়া ইমামস কাউন্সিল ইমামদের সর্বভারতীয় সংগঠন। ১ই নভেম্বর ৩০ ই নভেম্বর সারাদেশব্যাপী, রাসুল (স:) এর আদর্শ প্রচার অভিযান চালাচ্ছে।তারই অংশ হিসেবে গতকাল এই প্রকাশ্য সভা। রাসূল (সাঃ) মানবিক অধিকার প্রতিষ্ঠা ছিল তার জীবনের অন্যতম লক্ষ্য । আমাদের প্রিয় দেশে মানবিক অধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা বিভিন্নভাবে ঘটে চলেছে, ঠিক সেই সময় তাঁর আদর্শ অতি প্রাসঙ্গিক হয়ে পড়েছে। সকল মানুষের সৃষ্টিকর্তা এক তাই সকল মানুষের মানবিক অধিকার সুনিশ্চিত করতে প্রচারাভিযান চালাচ্চে এই সংগঠনটি।

এই সভায় যেসমস্ত বক্তাগণ আলোচনা করেন তাদের মধ্যে অন্যতম মাননীয় সাংসদ খলিলুর রহমান মহাশয়। তিনি তাঁর বক্তব্যে জানান, যে কোনো মূল্যে জনগণকে নিয়ে আমরা এনআরসি রুখব।
প্রধান বক্তা সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মুফতি হানিফ আহরার কাসেমী সাহেব দেশের অস্থির পরিস্থিতি নিয়ে বলতে গিয়ে বলেন, দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা দুর্বল হওয়ার পেছনে মব লিঞ্চিং অন্যতম কারণ। আমাদের দেশের অধিকাংশ মানুষ শ্রমজীবী। সেই শ্রমজীবী মানুষ নির্বিঘ্নে নির্ভয়ে​ বিভিন্ন রাজ্যে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে যার ফলে দেখা দিয়েছে দারিদ্রতা। তাই পিটিয়ে হত্যার ঘটনার শিকার হলে প্রতিরোধ গড়ে তোলা একান্ত প্রয়োজন।

ডক্টর মিনারুল শেখ এনআরসির বিষয় বলতে গিয়ে বলেন রাজ্য সরকার একদিকে এনআরসির বিরোধিতা করছেন, আর তারই রাজ্যে ডিটেনশন ক্যাম্প তৈরি হচ্ছে।তাই এনআরসির রুখতে সমস্ত মানুষকে সংঘবদ্ধ হতে হবে বলে জানান।
অল ইন্ডিয়া ইমামস কাউন্সিলের রাজ্য সভাপতি মাওলানা আব্দুত তাওয়াব তার বক্তব্যে​ বলেন ,বাবরি মসজিদ রায় সত্যের পরিপন্থী তাই ন্যায় বিচারের দাবীতে সকল গণতন্ত্রপ্রেমী মানুষদের ন্যায়ের পক্ষে আওয়াজ তুলতে হবে বলে জানান ।তিনি আরো বলেন, বাবরি মসজিদ রায় নিয়ে অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল‍ বোর্ড সুপ্রিম কোর্টে ন্যায় বিচারের দাবীতে রিভিউ পিটিশন দাখিল করছে অল ইন্ডিয়া ইমামস কাউন্সিল সেই সিদ্ধান্তের পূর্ণ সমর্থন জানাচ্ছে।

তিনি আরোও জানান বাবরি মসজিদ ন্যায়ের জন্য গণতান্ত্রিকভাবে অল ইন্ডিয়া ইমামস কাউন্সিল সাংবিধানিক পদ্ধতিতে বাবরি মসজিদ উদ্ধারের জন্য লড়াই চালিয়ে যাবে। বাবরি মসজিদ উদ্ধার কেবলমাত্র একটি মসজিদ উদ্ধার নয়, এটি একটি সাংবিধানিক অধিকার আদায়ের লড়াই বলে মন্তব্য করেন ।