কালীপূজোর খিচুড়ি খাওয়াকে কেন্দ্র করে গণ্ডগোল,মেরে মাথা ফাটিয়ে দিলো যুবকের

কালীপূজোর খিচুড়ি খাওয়াকে কেন্দ্র করে গণ্ডগোল,মেরে মাথা ফাটিয়ে দিলো যুবকের

পি.এম.নিউজ৩৬৫;জলপাইগুড়ি: কালীপুজোর খিচুড়ি খাওয়াকে কেন্দ্র করে গণ্ডগোল।এক ব্যাক্তিকে ব্যাপক মারধোর করে মাথা ফাটিয়ে দেওয়ার অভিযোগ অসিত বর্মণের বিরুদ্ধে।

অসিত সম্পর্কে চ্যাম্পিয়ন অ্যাথলেট স্বপ্না বর্মণের ভাই।এশিয়াডে সোনা পেয়েছিল স্বপ্না।জলপাইগুড়ির কালিয়াগঞ্জের স্বপ্না বর্মণের বাড়ি সংলগ্ন পাতকাটা ঘোষপাড়া জুনিয়র হাইস্কুলের ঘটনা।

সোমবার সকালে ওই স্কুলে কালীপূজো উপলক্ষে খিচুড়ি খাওয়ানো হচ্ছিল।সেই নিয়ে গণ্ডগোল বাধে।অভিযোগ অসিত বর্মণ মদ্যপ অবস্থায় গোলযোগ বাঁধায়।বেশ কয়েকটি চেয়ার ভাঙ্গে সে।

প্রতিবাদ করলে নিতাই বর্মণ (৫৫)নামে একজনকে ব্যাপক মারধোর করে।সম্পর্কে সে অসিতের দূরসম্পর্কের মামা।মারধোরে গুরুতর জখম ওই ব্যাক্তিকে প্রথমে জলপাইগুড়ি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।পরে অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে শিলিগুড়ির নার্সিংহোমে স্থানান্তরিত করা হয়।

স্থানীয় বাসিন্দারা অভিযোগ জানিয়েছেন,স্বপ্না চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর থেকে ছোট ভাই অসিত এলাকায় দাদাগিরি করে বেড়ায়।তাকে মদত দেয় এলাকার কিছু তৃনমূল কর্মীরা।

এরপর ঘটনা ধামাচাপা দিতে স্থানীয় তৃনমূল পঞ্চায়েত প্রধান হেমব্রম ও তৃনমূল নেতা কৃষ্ণ দাস স্বপ্নার বাড়িতেই সালিশি সভা করেন বলে অভিযোগ।সূত্রের খবর, সেখানে পুলিশও উপস্থিত ছিলেন।সেই সময় সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে সাংবাদিকদের বাধা দেয় ও  হুমকি দেয় স্বপ্নার মা বাসনা বর্মণ  এবং ওই তৃনমূল নেতা কর্মীরা।

ঘটনাস্থলে উত্তেজনা ছড়ায়।স্থানীয় বাসিন্দারা সকলেই স্বপ্নার মা এবং ভাই এর আচরণের প্রতিবাদে সরব হন।ডিএসপি হেড কোয়ার্টার প্রদীপ সরকারের নেতৃত্বে বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।ঘটনার পর থেকে পলাতক অভিযুক্ত অসিত।